ইনানীতে ধর্ষণের চেষ্টাকালে এক যুবক আটক

rape-try-Domestic-Violence_1.jpg

সিবিএন
উখিয়া উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের ইনানীর চারা বটতলী গ্রামের ছৈয়দ নুরের স্ত্রী ৪ সন্তানের জননী রোকেয়া বেগমকে একই এলাকার মোঃ কাছিমের ছেলে মাদকসেবী, নারী লোভী লম্পট ৩ সন্তানের জনক দিদার আলম ধর্ষণের চেষ্টাকালে আটক হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
জানা যায়, উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের চারা বটতলী গ্রামের ছৈয়দ নুর কক্সবাজারে সদর আবাসিক হোটেলে চাকুরী করে। বাড়ীতে না থাকার সুবাদে গত ১৫ জুন দিবাগত রাত ৩.৩০ টার সময় তার স্ত্রী রোকেয়া বেগম ছেহেরী খাওয়ার প্রস্তুতিকালে একই এলাকার কাছিমের ছেলে নারী লোভী, লম্পট দিদার আলম রোকেয়া বেগমের ঘরে ঢুকে তাকে জড়িয়ে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে রোকেয়া বেগমের শোর-চিৎকারে পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোকজন এসে তাকে হাতে নাতে আটক করে রাখে। পরে ১৬ জুন সকাল ১০ টায় ইনানী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জকে খবর দিলে ঘটনাস্থল থেকে লম্পট দিদার আলমকে গ্রেপ্তার করে উখিয়া থানায় সোপর্দ করা হয় বলে এস আই ছোটন জানান। শুধু তাই নয়, ইয়াবা ব্যবসায়ী দিদার আলমের বিরুদ্ধে এলাকায় বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে। লম্পট দিদার নিজে মাদক সেবন করে ও মাদক বিক্রি করে বলে এলাকার স্থানীয় অনেকে জানান। এব্যাপারে রোকেয়া বেগম বলেন, সে দু/এক মাস ধরে আমাকে বিভিন্নভাবে কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছে। আমি কু- প্রস্তাবে কোন প্রকার রাজি না হলে গত রাতে ছেহেরী খাওয়ার সময় অতর্কিত অবস্থায় আমার বাড়িতে ঢুকে আমাকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। আমার শোর চিৎকারে পার্শ্ববর্তী লোকজন এসে তাকে আটক করে রেখে পরে পুলিশ কাছে সোপর্দ করে। আমি উক্ত লম্পট দিদার আলমের শাস্তি চাই। এব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ নাজিম উদ্দিন উক্ত ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, লম্পট দিদার আলমের বিরুদ্ধে এলাকায় বিভিন্ন অপকর্মের অভিযোগ আমার কাছেও আছে। তবে ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনা নিয়ে মামলা প্রক্রিয়া চলছে বলে জানা গেছে।

Top